Chhath Puja

ছট পুজো ( chhath Puja) হল আদতে সূর্যদেব এবং তাঁর পত্নী ঊষাদেবীর পুজো। এই পুজোর প্রচলন পূর্ব ভারতের বিহার-ঝাড়খণ্ডে।(Chhath Puja is basically the worship of Suryadev and his wife Usha Devi. This pujo is popular in Bihar-Jharkhand of eastern India).

কী এই ছট পুজো ?

Chhath-PUJA

ছট পুজো হল আদতে সূর্যদেব এবং তাঁর পত্নী ঊষাদেবীর পুজো। এই পুজোর প্রচলন পূর্ব ভারতের বিহার-ঝাড়খণ্ডে। এছাড়া, মহাভারতের চরিত্রের সঙ্গেও রয়েছে ছটপুজোর যোগসূত্র। বিহার, ঝাড়খণ্ড ও পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন এলাকায় ধুমধাম করে পালিত হয় এই উৎসব। এর পাশাপাশি, উত্তরপ্রদেশের একটি বড় অংশেও এই পুজোর প্রচলন রয়েছে। ভারতের বাইরে নেপালের কিছু অংশেও এই উৎসব পালন করতে দেখা যায়। মহাভারতের আখ্যানের সঙ্গে যোগসূত্র স্থাপন করে অনেকে বলেন, অঙ্গদেশের রাজা হওয়ার পরে সেই অঞ্চলে ধুমধাম করে সূর্যদেবের পুজো ও উৎসবের প্রচলন করেন কর্ণ এবং সেই উৎসবই কয়েক হাজার বছর পেরিয়ে ছটপুজো হিসাবে পালিত হয়ে চলেছে।(Chhat Pujo is basically the worship of Suryadev and his wife Usha Devi. This pujo is popular in Bihar-Jharkhand of eastern India. Besides, Chhatpujo is also associated with the character of Mahabharata. The festival is celebrated in different parts of Bihar, Jharkhand and West Bengal. Apart from this, this pujo is also prevalent in a large part of Uttar Pradesh.
Apart from India, the festival is also celebrated in some parts of Nepal. Connected with the story of the Mahabharata, many say that after becoming the king of Angadesh, Karna introduced the worship and festival of the sun god in that region with great pomp and that festival has been celebrated as Chhatpujo for thousands of years.)

বর্তমান সময়ে Chhath Puja (2021) পূজার অবস্থান ….

বর্তমান ইয়াং জেনারেশন এই উৎসব এর সঙ্গে পরিচিত নয় কিন্তু আমাদের ভারতীয় সংস্কিতি তে এই পুজোর গুরুত্ব অপরিসীম এবং আমাদের নতুন প্রজন্ম কে এই পুজোর গুরুত্ব আমরা বোধয় বোঝাতে পারি না. এই পুজো তা কোনো জাতি বিশেষ পুজো নয় এটা সূর্য দেবের পুজো এই পুজো আমাদের সবার – বাঙালির উৎসব মোটামুটি শেষ, তবে অবাঙালি সম্প্রদায়ের একাংশের বড় উৎসব এখন প্রায় দোরগোড়ায়। 8 নভেম্বর,2021 সোমবার থেকে শুরু হয়ে গেল ছট পুজো। আগামী 11 নভেম্বর অবধি চারটি তিথিতে চলবে এই পুজোর বিভিন্ন আচার অনুষ্ঠান। সাধারণত বছরে দু’বার পালিত হয় এই পুজো— প্রথমবার চৈত্র মাসে (একে বলে চৈতী ছট) এবং দ্বিতীয়বার কার্তিক মাসে (এর নাম কার্তিকী ছট)। (The present young generation is not familiar with this festival but the importance of this pujo in our Indian culture is immense and our new generation who knows this pujo We probably don’t understand the importance. This pujo is not a special pujo of any nation. It is the pujo of the sun god Chhat Pujo started from Monday, November 8, 2021. The various rituals of this puja will continue on four dates till November 11. This pujo is usually celebrated twice a year. The first time in the month of Chaitra (called Chaiti Chhat) and the second time in the month of Kartik (its name is KartikiChhat).

)

দেখে নিন কোন দিন কোন তিথি(Take a look at which day is which date)

Chhath Puja Day 1: Nahay-Khay: 8 November 2021
Chhath Puja Day 2: Lohanda and Kharna – 9 November 2021
Chhath Puja Day 3: Sandhya Arghya – 10 November 2021
Chhath Puja Day 4: Usha Argh and Paran – 11 November 2021

Chhath Pujaঅনুষ্ঠান….

চারদিনের এই ব্রতের প্রথম দিনে বাড়ি-ঘর পরিষ্কার করে স্নান সেরে শুদ্ধাচারে নিরামিষ খাওয়ার রেওয়াজ আছে। একে “নহায়-খায়” বলা হয়, পরদিন থেকে শুরু হয় উপোস। ব্রতীরা দিনভর নির্জলা উপবাস করে সন্ধ্যার পর পুজো শেষ করে ক্ষীরের খাবার খান, একে “খরনা” বলে। তৃতীয় দিনে সূর্যাস্তের সময় কোনও নদী বা জলাশয়ের ঘাটে গিয়ে অন্যান্য ব্রতীদের সঙ্গে অস্তগামী সূর্যকে দুধ অর্পণ করেন ব্রতীরা, এই আচারকে “সন্ধ্যা অর্ঘ্য” বলে। ব্রতের শেষদিন ঘাটে গিয়ে উদীয়মান সূর্যকে ফের দুধ দান করে উপোস ভাঙা হয়। এই আচারের নাম “ঊষা অর্ঘ্য”। সব মিলিয়ে ছট উপলক্ষে প্রায় ৩৬ ঘণ্টা নির্জলা উপোস করেন ব্রতীরা। পুজোর প্রসাদ হিসাবে থাকে বাঁশ দিয়ে তৈরি পাত্রে গুড়, মিষ্টি, ক্ষীর, ঠেকুয়া, ভাতের নাড়ু, আখ, কলা, মিষ্টি লেবু।(On the first day of this four-day vow, it is customary to clean the house, take a bath and eat vegetarian food. It is called “Nahay-Khay”, fasting starts from the next day. The novices fast all day without water and after the evening they finish the puja and eat the milky food, it is called “Kharna”.On the third day, at sunset, the devotees go to the bank of a river or water body and offer milk to the setting sun along with other devotees. This ritual is called “Sandhya Arghya”. On the last day of the vows, the fast is broken by going to the ghat and giving milk to the rising sun again. The name of this ritual is “Usha Arghya”. In all, the novices fasted for about 36 hours on the occasion of Chhat. Pujo prasad contains molasses, sweets, latex, thekuya, rice bran, sugarcane, banana and sweet lemon in bamboo containers.)

Leave a Reply

Your email address will not be published.